ঢাকামঙ্গলবার , ৬ ডিসেম্বর ২০২২
  • অন্যান্য
আজকের সর্বশেষ সবখবর

গসিপ করলে যে শুধুই মন হালকা হয় এমন নয়, শরীরও ভালো থাকে। সঙ্গে জ্ঞান বৃদ্ধিও হয়।

বিনোদন ডেস্ক :
ডিসেম্বর ৬, ২০২২ ৩:৩৩ অপরাহ্ণ । ১৫৩ জন

অফিসের টি ব্রেকে বেরিয়ে দেখলে আপনার দুই সহকর্মী মন দিয়ে কিছু আলোচনা করছেন। কাছে যেতেই বুঝলেন আপনাকে দেখে বদলে দিল আলোচনার বিষয়বস্তু। অন্যদিকে, তিন পুরুষ সহকর্মীর পাশ দিয়ে যেতে গিয়ে বুঝলেন চলছে জোড় পরনিন্দা-পরচর্চা। বসের নিন্দা করছেন সকলে মন খুলে। এই চিত্র দেখে ভ্রু কোঁচকালেও কিছু করার নেই। এটাই বাস্তব। অফিস, স্কুল-কলেজ, বন্ধুদের গ্রুপ এমনকী বাড়ির বাইরে বেরিয়ে শ্বশুরবাড়ির নিন্দা করার মতো ঘটনা ঘটে সর্বত্র। খুঁজলে দেখা যাবে, এমন বহু মানুষ মানুষ আছে যারা কারণ ছাড়াই পরনিন্দা-পরচর্চায় মেতে যান।


এক সময় ‘গসিপ করাটা মেয়েদের কাজ’ এমন কথা প্রচলিত থাকলেও আজকাল সব জায়গায় গসিপের টিমে যোগ দিয়েছেন পুরুষরাও। এখন প্রশ্ন হল, তাহলে কি সকলেই খারাপ? সকলেই ভুল করেন? গসিপ করে এমন কী আনন্দ পাওয়া যায় যে সকলে এই দল যোগ দেন? বিশিষ্ট সাইকোলজিস্ট এবং দ্য লিডারস গাইড টু রেজিলিয়েন্স-এর লেখক ডঃ অড্রে ট্যাং গসিপকে “অন্য কারো সম্পর্কে কথা বলা” হিসাবে বর্ণনা করেছেন যে “সেই সময়ে উপস্থিত নেই”।


সে যাই হোক, আজ জেনে নিন গসিপ করা কী কী লাভ হতে পারে-
গবেষণায় জানা গিয়েছে, গসিপের মধ্যে দিয়ে মনের কথা ভাগ করা সম্ভব। যেমন ধরুন অফিসে সেই সহকর্মীর সঙ্গে আপনার বেশি বন্ধুত্ব, যার সঙ্গে গসিপ করে মন হালকা হয়। বিষয়টি শুনতে খারাপ লাগলেও এটাই বাস্তব। এমনকী, যে কোনও জায়গায় দুজন মানুষের মধ্যে তখনই বেশি বন্ধুত্ব হয়, যখন তারা মন খুলে গসিপ করতে পারেন। এতে যে শুধুই মন হালকা হয় এমন নয়, শরীরও ভালো থাকে। সঙ্গে জ্ঞান বৃদ্ধিও হয়। যে কোনও বিষয় গসিপ করতে গিয়ে দুজন মানুষের মধ্যে জ্ঞানেও আদান-প্রদান ঘটে থাকে।

দ্বিতীয়ত, যে কোনও সঠিন সমস্যা এড়িয়ে যাওয়া সম্ভব গসিপের সাহায্যে। ধরা যাক, আপনি আপনার সহকর্মীর সঙ্গে বসের কোনও আচরণ নিয়ে নিন্দা করলেন। এই সময় আপনার সহকর্মীর থেকেও শুনলেন তাঁর অভিজ্ঞতা। এই দুজনের অভিজ্ঞতা বিনিময়ের মধ্যে দিয়ে একে অন্যের সঙ্গে হওয়া খারাপ অভিজ্ঞতা সম্পর্ক আগেই জেনে যাওয়ায় সতর্ক হয়ে গেলেন। এই অভিজ্ঞতা ভবিষ্যতে অন্য কোনও খারাপ পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে সাহায্য করবে।

তবে সতর্ক হন। কর্মক্ষেত্রে, আত্মীয়দের মাঝে, বন্ধুদের মাঝে যখনই পরনিন্দা-পরচর্চায় মজে যাবেন, সতর্ক থাকবেন। আবেগের বসে মনখুলে এমন কথা বলে ফেলবেন না, যা নিয়ে ভবিষ্যতে আপনাকে সমস্যায় পড়তে হয়। কেউ চালাকি করে আপনার সব মনের কথা জেনে পরে আপনাকেই সমস্যায় ফেলতে পারে। তাই গসিপ বা পরনিন্দা-পরচর্চায় অবশ্যই অংশ নিন, কিন্তু সতর্ক থাকুন। মনে রাখবেন গসিপ ততক্ষণ করা ভালো, যতক্ষণ না তা কারও ক্ষতি করছে।